অন্যান্য

প্রশ্ন : হারাম উপার্জনকারীর বাড়িতে দাওয়াত খাওয়া ও দেয়া কোন উপহার গ্রহণ করা যাবে কি?

উত্তর : অবৈধ পন্থায় উপার্জিত সম্পদ উপার্জনকারীর জন্য হারাম। কিন্তু ঐ ব্যক্তি থেকে শারঈ পন্থায় যিনি গ্রহণ করবেন, তা তার জন্য হালাল। তবে এ সম্পদ গ্রহণ করা থেকে বিরত থাকাই উত্তম। কারণ তার সম্পদ গ্রহণ না করাতে হারামখোরের মধ্যে পরিবর্তনও হতে পারে।

আব্দুল্লাহ ইবনু মাসঊদ (রাযিয়াল্লাহু আনহুমা) হতে বর্ণিত,

أنَّهُ سُئِلَ عَمَّنْ لَهُ جَارٌ يَأكُلُ الرِّبَا عَلَانِيَّةً وَلَا يَتَحَرَّجُ مِن مَّالٍ خَبِيْثٍ يَأخُذُهُ يَدْعُوْهُ إِلَى طَعَامِهِ قَالَ أَجِيْبُوْهُ فَإنَّمَا الْمَهْنأُ لَكُمْ وَالْوِزْرُ عَلَيْهِ

‘সূদী কারবারে যুক্ত এক প্রতিবেশীর দাওয়াতে অংশগ্রহণের ব্যাপারে তাকে প্রশ্ন করা হলে উত্তরে তিনি বলেন, তোমরা তার দাওয়াতে সাড়া দাও। কেননা এ ব্যাপারে আনন্দটা তোমাদের জন্য। আর এর পাপ তার উপর বর্তাবে’ (ইবনু রজব, জামি‘উল ‘উলূমি ওয়াল হিকাম, পৃ. ৭১)।

রাসূলুল্লাহ (ছাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) ইহুদীদের সাথে লেনদেন করতেন, তাদের হাদিয়া গ্রহণ করতেন। অথচ তারা সূদী কারবার করত। খায়বারের ইহুদী মহিলার পক্ষ থেকে ছাগল হাদিয়া গ্রহণ করেছিলেন (আবূ দাঊদ, হা/৪৫১২, সনদ হাসান)।

মৃত্যুর পূর্বে এক ইহুদীর নিকট তার বর্ম বন্ধক রেখেছিলেন (ছহীহ বুখারী, হা/২০৬৯; ছহীহ মুসলিম, হা/১৬০৩)।

 

সূত্র: মাসিক আল-ইখলাছ।

➥ লিংকটি কপি অথবা প্রিন্ট করে শেয়ার করুন:
পুরোটা দেখুন

Mahmud Ibn Shahid Ullah

"যে আল্লাহর দিকে দাওয়াত দেয়, সৎকর্ম করে এবং বলে, আমি একজন মুসলিম, তার কথা অপেক্ষা উত্তম কথা আর কার?" আমি একজন তালিবুল ইলম। আমি নিজেকে ভুলের উর্ধ্বে মনে করি না এবং আমিই হক্ব বাকি সবাই বাতিল এমনও ভাবিনা। অতএব, আমার দ্বারা ভুলত্রুটি হলে নাসীহা প্রদানের জন্যে অনুরোধ রইল। ❛❛যখন দেখবেন বাত্বিল আপনার উপর সন্তুষ্ট, তখন বুঝে নিবেন আপনি ক্রমের হক্ব থেকে বক্রপথে ধবিত হচ্ছেন।❞

এই বিষয়ের সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য লিখা

Back to top button