সন্তান প্রতিপালন

প্রশ্ন: নবজাতকের মাথার চুল বরাবর রৌপ্য দান করা এবং তার নাভি মাটিতে পূতে রাখা এটা কি সঠিক?

প্রশ্ন-১) আমরা জানি, নবজাতকের চুলের ওজন পরিমাণ রৌপ্য সদকা করা সুন্নত।

এখন প্রশ্ন হল, এখানে চুল ওজন করে সেই সমপরিমাণ রৌপ্যমূল্য টাকার মাধ্যমে কোন গরিবকে সদকা করা যাবে কি?

না কি রৌপ্য আকারেই সাদকা করতে হবে ?

 

প্রশ্ন-২) শিশুর নাভি জন্মের পর আপনা-আপনি পড়ে গেলে এটিকে কেউ কেউ মাটিতে পুঁতে রাখতে বলে। এটি কি ঠিক? আসলে কী করতে হবে?

উত্তর: ১) নবজাতকের চুল সমপরিমাণ রৌপ্য দান করার ব্যাপারে হাদিস বর্ণিত। কিন্তু সেটি সহীহ-যঈফ হওয়ার ব্যাপারে মুহাদ্দিসদের মতে দ্বিমত রয়েছে। হাদীসটি হল, আলী রা. বলেন:

” عقّ رسول الله – صلى الله عليه و سلم – عن الحسَن بشاةٍ و قال يا فاطمة احلقي رأسه و تصدقي بزنةِ شعره فضّةً

“আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হাসানের পক্ষ হতে ছাগল আক্বীকা করেন এবং ফাতেমা রা. কে বলেন:

তার মাথা মুণ্ডন করে দাও এবং চুলের ওজন বরাবর রৌপ্য সদকা করে দাও।”

[তিরমিযী, অধ্যায়, আযাহী, হাদীস নং ১৫১৯। তবে ইমাম তিরমিযি, বাইহাকী, ইবলুল কাত্তান, ইবনুল কাইয়েম প্রমূখ মুহাদ্দিসগণ এটির সনদগত কিছু সমস্যার কথা তুলে ধরে যঈফ বলেছেন।

পক্ষান্তরে ইমাম আলবানী রহ. এটিকে অন্যান্য সমার্থবোধক হাদিসের সমন্বয়ে হাসান বলেছেন।]

মোটকথা উক্ত হাদিসটি সহীহ-যঈফ হওয়ার ব্যাপারটি দ্বিমতপূর্ণ হওয়ায় এটি আমল যোগ্য কি না তা নিয়েও আলেমদের মাঝে দ্বিমত সৃষ্টি হয়েছে।

যোহোক, কেউ যদি উক্ত হাদিসের প্রতি আমল করতে চায় তাহলে করতে পারে আর না করলেও সমস্যা নেই ইনশাআল্লাহ।

আপনি যদি আমল করতে চান তাহলে ৭ম দিনে নবজাতকের মাথা চুল মুণ্ডণ করে তার ওজন বরাবর রৌপ্য অথবা তার সমপরিমান টাকা সদকা করবেন। আল্লাহ তাআলা দাওফিক দান করুন।

 

২.  শিশুর নাভি মাটিতে পূতে রাখতে হবে- শরীয়তে এমন কোন নির্দেশনা আসে নি। সুতরাং কেউ ইচ্ছে করলে মাটিতে পূতে রাখতে পারে আবার ময়লা ফেলার স্থানে ফেলেও দিতে পারে।

এতে শরিয়তে কোন বাঁধা নেই। তবে বাইরে ফেললে সেটা শিয়াল-কুকুর বা কাক, পাখি ইত্যদি এ দিক-সে দিক টানাটানি করে পরিবেশ নোংরা করতে পারে।

তাই পরিবেশের রক্ষার স্বার্থে মাটির নিচে পূতে ফেলায় অধিক উত্তম হবে।
আল্লাহু আলাম

 

▬▬▬🌐🔸🌐▬▬▬
উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল মাদানী
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার, সৌদি আরব।

 

নবজাতকের মাথার চুল সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ন মাসলা মাসায়েল, ইসলামিক জিজ্ঞাসা ও জবাব, ইসলামিক প্রশ্নোত্তর।

শিশু জন্মের সাত দিন পর যে চুল কাটা হয়, ওজন দিয়ে সমপরিমাণ টাকা কি সদকা দিতে হয়?

উত্তর : হ্যাঁ, সমপরিমাণ টাকা সদকা দেওয়ার বিষয়টি সুন্নাহ দ্বারা সাব্যস্ত হয়েছে। এটি সদকা করাটা উত্তম, ওলামায়ে কেরাম এটাকে মুস্তাহাব বলেছেন। সুতরাং যদি কারো সামর্থ্য থাকে ওই পরিমাণ ওজন করে ততটুকু রৌপ্যের যে মূল্য হয়, সেই মূল্য নির্ধারণ করে সেটা সদকা করবেন বা গরিব মিসকিনদের মধ্যে বণ্টন করে দেবেন, তাহলে সেটি হবে সুন্নাহ।

টাকা তো ওজন করা যায় না। তাই ওই চুলের সমপরিমাণ রৌপ্য গ্রহণ করে সেই রৌপ্যটাও আপনি দিতে পারেন বা তার সমপরিমাণ টাকাটাও সদকা করতে পারবেন। দুটিই জায়েজ রয়েছে আপনার জন্য।

শিশু জন্মের কতদিন পর চুল কাটতে হয়?

উত্তর: সাত দিন পর চুল কাটা হয়

ইসলামে চুল কাটার নিয়ম

শাইখ মুহাম্মদ বিন ইব্রাহিমকে এ সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন:
চুলের ক্ষেত্রে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের আদর্শ হচ্ছে– সবগুলো চুল রেখে দেওয়া কিংবা সবগুলো চুল ফেলে দেওয়া। এমন ছিল না যে, তিনি কিছু অংশের চুল কামাই করতেন; আর কিছু অংশের চুল রেখে দিতেন।

➥ লিংকটি কপি অথবা প্রিন্ট করে শেয়ার করুন:
পুরোটা দেখুন

মাহবুব বিন আনোয়ার

❝ আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি আল্লাহ ছাড়া কোন হক ইলাহ নেই,এবং মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তার বান্দা ও রাসূল।❞ আমি যদিও একজন জেনারেল পড়ুয়া ছাত্র তাই আমার পক্ষে ভুল হওয়া অসম্ভব কিছু না, আমি ইসলামী শরীইয়াহ বিষয়ক জ্ঞান অর্জনের চেষ্টা করছি এবং এর সাথে মানুষ কে রাসুল (সা:) এর হাদিস এবং আমাদের সালফে সালেহীনদের আদর্শের দিকে দাওয়াত দেওয়ার চেষ্টা করি। যদি আমার কোন ভুল হয় ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন এবং সেটা আমাকে জানাবেন যাতে আমি শুধরে নিতে পারি।

এই বিষয়ের সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য লিখা

Back to top button