রোজা / সিয়াম

প্রশ্ন: আরাফার সিয়াম কবে?

উত্তর: নবী ( ﷺ ) বলেছেন; ﺻِﻴَﺎﻡُ ﻳَﻮْﻡِ ﻋَﺮَﻓَﺔَ “আরাফা দিবসের সিয়াম”।

কাজেই আরাফার সিয়াম জিলহজ্জ মাসের ৯ তারিখের হিসাবে হবে না।

হাজিরা যেদিন আরাফায় অবস্থান করবে সে দিনই আরাফার সিয়াম রাখাতে হবে।

৯ তারিখ পৃথিবীতে দুই দিন হতে পারে। কিন্তু আরাফা পৃথিবীতে একদিনই হয়।

নবী ( ﷺ ) ৯ তারিখের কথা বলেন নাই।

কুরআনের বানী-

ﻳَﺴْﺄَﻟُﻮﻧَﻚَ ﻋَﻦِ ﺍﻟْﺄَﻫِﻠَّﺔِ ۖ ﻗُﻞْ ﻫِﻲَ ﻣَﻮَﺍﻗِﻴﺖُ ﻟِﻠﻨَّﺎﺱِ ﻭَﺍﻟْﺤَﺞِّ

তারা তোমাকে নতুন চাঁদসমূহ সম্পর্কে প্রশ্ন করে। বল, ‘তা মানুষের ও হজ্জের জন্য সময় নির্ধারক’।

(বাকারাহ, ২/১৮৯)

আয়াতে দেখুন; ﻣَﻮَﺍﻗِﻴﺖُ ﻟِﻠﻨَّﺎﺱِ ﻭَﺍﻟْﺤَﺞِّ আল্লাহ মানুষের জন্য সময় নির্ধারক আর হজ্জের জন্য সময় নির্ধারক আলাদা ভাবে উল্লেখ করেছেন।

কাজেই ৯ তারিখের হিসাব আর হজ্জ বা আরাফার সিয়ামের হিসাব আলাদা।

আবূ ক্বাতাদাহ আল-আনসারী রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন,

ﻭَﺳُﺌِﻞَ ﻋَﻦْ ﺻَﻮْﻡِ ﻳَﻮْﻡِ ﻋَﺮَﻓَﺔَ ﻓَﻘَﺎﻝَ ﻳُﻜَﻔِّﺮُ ﺍﻟﺴَّﻨَﺔَ ﺍﻟْﻤَﺎﺿِﻴَﺔَ ﻭَﺍﻟْﺒَﺎﻗِﻴَﺔَ

রাসূল ( ﷺ )-কে আরাফার দিনের সওম সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, তাতে পূর্ববর্তী বছর ও পরবর্তী বছরের গোনাহসমূহের কাফফারা হয়ে যায়।

(সহিহ মুসলিম: ২৬৩৭)

অন্যত্র রাসূল ( ﷺ ) বলেন,

ﺻِﻴَﺎﻡُ ﻳَﻮْﻡِ ﻋَﺮَﻓَﺔَ ﺃَﺣْﺘَﺴِﺐُ ﻋَﻠَﻰ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﺃَﻥْ ﻳُﻜَﻔِّﺮَ ﺍﻟﺴَّﻨَﺔَ ﺍﻟَّﺘِﻲ ﻗَﺒْﻠَﻪُ ﻭَﺍﻟﺴَّﻨَﺔَ ﺍﻟَّﺘِﻲ ﺑَﻌْﺪَﻩُ

আরাফা দিবসের সওম সম্পর্কে আমি আল্লাহর কাছে আশাবাদী যে, তাতে পূর্ববর্তী বছর ও পরবর্তী বছরের গুনাহর কাফফারা হয়ে যাবে।

(সহিহ মুসলিম: ২৬৩৬)

আবার অপর পক্ষে মত হল নিজ নিজ দেশের জিলহজ্জ এর নয় তারিখে সিয়াম রাখবে৷

তবে যেহেতু মতভেদ আছে তাই বাংলাদেশের মানুষ ২০ ও ২১ দু তারিখেই রাখবে৷ সেটাই অধিক উত্তম।

যেহেতু ২০ তারিখ সিয়াম রাখা নিষিদ্ধ নয়।।আবার সে দিন সোমবার (হাদিস অনুযায় এই দিমে এমনিতেই সিয়াম রাখার অনুমতি আছে)ও তাই সকলের উচিত দু দিন ই সিয়াম রাখা।সন্দেহ মুক্ত আমল করা।।

ﺃَﺧْﺒَﺮَﻧَﺎ ﻣُﺤَﻤَّﺪُ ﺑْﻦُ ﺃَﺑَﺎﻥَ، ﻗَﺎﻝَ : ﺣَﺪَّﺛَﻨَﺎ ﻋَﺒْﺪُ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﺑْﻦُ ﺇِﺩْﺭِﻳﺲَ، ﻗَﺎﻝَ : ﺃَﻧْﺒَﺄَﻧَﺎ ﺷُﻌْﺒَﺔُ، ﻋَﻦْ ﺑُﺮَﻳْﺪِ ﺑْﻦِ ﺃَﺑِﻲ ﻣَﺮْﻳَﻢَ، ﻋَﻦْ ﺃَﺑِﻲ ﺍﻟْﺤَﻮْﺭَﺍﺀِ ﺍﻟﺴَّﻌْﺪﻱِّ، ﻗَﺎﻝَ : ﻗُﻠْﺖُ ﻟِﻠْﺤَﺴَﻦِ ﺑْﻦِ ﻋَﻠِﻲٍّ ﺭَﺿِﻲَ ﺍﻟﻠَّﻪُ ﻋَﻨْﻬُﻤَﺎ : ﻣَﺎ ﺣَﻔِﻈْﺖَ ﻣِﻦْ ﺭَﺳُﻮﻝِ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﺻَﻠَّﻰ ﺍﻟﻠﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺳَﻠَّﻢَ؟ ﻗَﺎﻝَ : ﺣَﻔِﻈْﺖُ ﻣِﻨْﻪُ : ‏« ﺩَﻉْ ﻣَﺎ ﻳَﺮِﻳﺒُﻚَ ﺇِﻟَﻰ ﻣَﺎ ﻟَﺎ ﻳَﺮِﻳﺒُﻚَ »

আবুল হাওরা সা‘দী (রহঃ)
তিনি বলেন, হাসান ইব্ন আলী (রাঃ)-এর নিকট জিজ্ঞাসা করলাম, আপনি রাসূলুল্লাহ্ (সাল্লালাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) থেকে কোন্ কথা স্মরণ রেখেছেন?

তিনি বললেনঃ আমি তাঁর থেকে স্মরণ রেখেছিঃ যা তোমাকে সন্দেহে নিপতিত করে, তা পরিত্যাগ করবে।

আর যাতে কোন সন্দেহ নেই তা-ই করবে।

সুনানে আন নাসায়ী, হাদিস নং ৫৭১১

হাদিসের মান: সহিহ হাদিস

➥ লিংকটি কপি অথবা প্রিন্ট করে শেয়ার করুন:
পুরোটা দেখুন

মাহবুব বিন আনোয়ার

❝ আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি আল্লাহ ছাড়া কোন হক ইলাহ নেই,এবং মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তার বান্দা ও রাসূল।❞ আমি যদিও একজন জেনারেল পড়ুয়া ছাত্র তাই আমার পক্ষে ভুল হওয়া অসম্ভব কিছু না, আমি ইসলামী শরীইয়াহ বিষয়ক জ্ঞান অর্জনের চেষ্টা করছি এবং এর সাথে মানুষ কে রাসুল (সা:) এর হাদিস এবং আমাদের সালফে সালেহীনদের আদর্শের দিকে দাওয়াত দেওয়ার চেষ্টা করি। যদি আমার কোন ভুল হয় ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন এবং সেটা আমাকে জানাবেন যাতে আমি শুধরে নিতে পারি।

এই বিষয়ের সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য লিখা

Back to top button